You are currently viewing ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও | 3 International SEO strategy Bangla

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও কী?, কোন ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা হয়, এর কী কী অংশ রয়েছে এই বিষয়গুলো এই আর্টিকেলে তুলে ধরা হয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও

ইন্টারন্যাশনাল এসইও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু অনেকেই এটিকে ঠিকভাবে বুঝতে পারেন না। ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর মধ্যে যে সকল পদক্ষেপ গুলো পরে যেগুলো করার মাধ্যমে আমরা সার্চ ইঞ্জিনকে জানাই যে একটি ওয়েবসাইট কোন ভাষা এবং কোন দেশের জন্য সবচাইতে বেশি ভালো।

আপনি যে ওয়েবসাইটের জন্য কাজ করছেন সেটির ব্যবহারকারীরা যদি একটি দেশের হয় আর একটি ভাষার মানুষের জন্যই হয় তাহলে আপনি যেই প্লাটফর্মই ব্যাবহার করেন না কেন আপনার সাইটের কোডে সেই দেশের এবং ভাষার তথ্য থাকে। সার্চ ইঞ্জিন এটা সহজে খুঁজে নিতে পারে।

কিন্তু যখন একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশ এবং ভাষাকে টার্গেট করতে হয় সেক্ষেত্রে বিষয়টা অন্যরকম হয়।

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর এর পদ্ধতি ব্যবহার করে আপনি সার্চ ইঞ্জিনকে বলতে পারেন আপনার ওয়েবসাইটের কোন অংশ কোন দেশের জন্য পারফেক্ট, এবং কোন ভাষার মানুষের জন্য তৈরী।

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর অংশসমূহ

এখন আমরা ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর বিভিন্ন অংশ নিয়ে আলোচনা করবো। ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও কে আমরা তিনটি অংশে বিভক্ত করতে পারি।

  1. কান্ট্রি টার্গেটিং এবং সেটাপ
  2. ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং এবং সেটাপ
  3. চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন

বুঝতেই পারছেন এটি একটি বৃহৎ টপিক। এগুলো নিয়ে এই আর্টিকেলে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করবো। জানতে পারবেন এগুলো কী, কিভাবে প্ল্যান করা যেতে পারে, এবং সেটাপ করা যেতে পারে।

কান্ট্রি টার্গেটিং এবং সেটাপ

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর এর ধাপ হল হলো কান্ট্রি টার্গেটিং এবং সেটাপ। স্পেসিফিক কান্ট্রি টার্গেট করার জন্য ওয়েবসাইটের ইউ আর এল স্ট্রাকচারকে স্পেসিফিক করা হয়। এটি তিনটি পদ্ধতিতে করা যায় বা তিনটি অপশন ও বলা যেতে পারে।

  1. কান্ট্রি স্পেসিফিক TLD ( Top Level Domain )
  2. সাবডোমেইন
  3. চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন

কান্ট্রি স্পেসিফিক টপ লেভেল ডোমেইন

উদাহরণস্বরূপ বাংলাদেশের জন্য bd, ইউনাইটেড স্টেটস এর জন্য us, ইন্ডিয়ার জন্য in, ফ্রান্স এর জন্য fr । অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইট যদি হয় abcd.com তাহলে,

  • ইন্ডিয়া স্পেসিফিক ওয়েবসাইট হবে abcd.in
  • বাংলাদেশ স্পেসিফিক ওয়েবসাইট হবে abcd.bd
  • ইউনাইটেড স্টেটস স্পেসিফিক ওয়েবসাইট হবে abcd.us
  • ফ্রান্স স্পেসিফিক ওয়েবসাইট হবে abcd.fr

সুবিধা

  • এটি সবচেয়ে ভালো অপশন হবে যদি আপনি একই ভাষা ব্যাবহার করে এরকম কান্ট্রিগুলোকে সিলেক্ট করতে চান।
  • এগুলো সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী জিও টার্গেটিং সিগন্যাল দেয়।
  • সার্চ ইঞ্জিনকে ক্লিয়ারলি বলে দেয় কোন কান্ট্রিকে টার্গেট করা হয়েছে।

অসুবিধা

  • এটিতে খরচ বেশি হয়।
  • প্রতিটি দেশের উপর ভিত্তি করে ভিন্ন ভিন্ন ডোমেইন কিনতে হয় এবং প্রতিটি দেশে আলাদাভাবে হোস্ট করতে হয়।
  • এই সকল ওয়েবসাইটগুলিতে আলাদাভাবে এস ই ও এর কাজ করতে হয় এবং ম্যানেজ করতে হয়।

সাব ডোমেইন

এগুলো মেইন ডোমেইন এর উপরই নির্ভর করে। তবে সকল সাব ডোমেইন গুলোকে সার্চ ইঞ্জিন ভিন্ন ভিন্ন ডোমেইন মনে করে।

সাব ডোমেইন নিয়ে কাজ করলে,

  • ইন্ডিয়ার ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে in.abcd.com
  • বাংলাদেশ এর ক্ষেত্রেওয়েবসাইট হবে bd.abcd.com
  • ইউনাইটেড স্টেটস এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে us.abcd.com
  • ফ্রান্স এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে fr.abcd.com

সুবিধা

  • সেটাপ করা সহজ।
  • হোস্টিং ম্যানেজ করা সহজ।
  • ভিন্ন ভিন্ন ডোমেইন কিনতে হয় না।

অসুবিধা

  • ইউ আর এল মনে রাখা কঠিন হয়।
  • country.domain ইউজার ফ্রেন্ডলি অপশন নয়।
  • আপনার ডোমেইন এর রাংকিং সিগন্যাল বিভক্ত হয়ে যায়।
  • সার্চ ইঞ্জিন সাবডোমেইনগুলোকে আলাদা আলাদা ডোমেইন হিসেবে ধরে নেয়।

সাব ডিরেক্টরী বা সাব ফোল্ডার

এক্ষেত্রে সকল ভাষার সকল দেশের ভিজিটরদের জন্য একটি ডোমেইন ব্যবহার করা হয়। তবে ফোল্ডার ভিন্ন ভিন্ন হয়। যেমন,

  • ইন্ডিয়ার ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে abcd.com/IN
  • বাংলাদেশ এর ক্ষেত্রেওয়েবসাইট হবে abcd.com/BD
  • ইউনাইটেড স্টেটস এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে abcd.com/US
  • ফ্রান্স এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট হবে abcd.com/FR

সুবিধা

  • একটি ডোমেইন এর মাধ্যমে সকল কাজ সহজে করা যায়।
  • সেটআপ করা সবচেয়ে সহজ।
  • ইউ আর এল ইউজার ফ্রেন্ডলি হয়।
  • ওয়েবসাইট ম্যানেজ করা সহজ।
  • আলাদা ওয়েবসাইটের প্রয়োজন হয় না। যার ফলে আলাদা এস ই ও ক্যাম্পেইন এর প্রয়োজনও হয় না।

অসুবিধা

  • পুরো ওয়েবসাইট একটি সার্ভারে থাকে। যার ফলে বিভিন্ন কান্ট্রি ভিত্তিক সার্ভার সেটাপ করে জিও টার্গেটিং এর সুবিধা নেয়া কিছুটা কষ্টসাদ্ধ হয়ে যায়।

সামগ্রিকভাবে বলা যায় ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও তে কান্ট্রি টার্গেটিং এর জন্যে কম খরচে সেরা অপশন হলো সাব ডিরেক্টরি সেটআপ আর বেশি খরচে কিন্তু সেরা অপশন হলো কান্ট্রি স্পেসিফিক TLD।

ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং এবং সেটাপ

ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর দ্বিতীয় অংশটি হলো ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং। ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং কান্ট্রি টার্গেটিং এর মতোই গুরুত্তপূর্ণ একটি অংশ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই লক্ষ্য করা যায় যে, কান্ট্রি এবং ল্যাঙ্গুয়েজ একই সাথে পরিবর্তিত হয়। তবে কিছু অন্যরকম বিষয়ও থাকে। যেমন, ইন্ডিয়া দেশ একটি তবে তাদের ভাষা অনেকগুলি। আরেকটি অন্যরকম কেস হতে পারে মেক্সিকো এবং স্পেন দেশের। তারা দুইটি দেশ কিন্তু দুই দেশেরই ভাষা স্প্যানিশ।

ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং এর জন্য HREFLANG Tag ব্যবহার করা হয়। HREFLANG Tag কে হেড সেকশনে যুক্ত করা হয়। এখানে সকল পেইজের জন্য ভিন্ন ভিন্ন ইউ আর এল দেয়া হয় এবং সাথে ওই স্পেসিফিক পেইজ এর ইউ আর এল দেয়া হয় যেই পেইজে এই ট্যাগ যুক্ত করা হচ্ছে।

HREFLANG Tag এর কাঠামো কিছুটা নিচের মতো।

<link rel = "alternate" href = "http://abcd.com/bd" hreflang = "en-bn"/>

উদাহরণস্বরূপ আমাদের একটি পেইজ রয়েছে abcd.com/page এর তিনটি কান্ট্রি পেইজ রয়েছে।

  1. abcd.com/US/page
  2. abcd.com/BD/page
  3. abcd.com/FR /page

এই তিনটি পেইজের জন্য HREFLANG Tag কিছুটা নিচে দেয়া কোডের মতো হবে।

<link rel = "alternate" href = "http://abcd.com/us" hreflang = "en-us"/>
<link rel = "alternate" href = "http://abcd.com/bd" hreflang = "en-bn"/>
<link rel = "alternate" href = "http://abcd.com/fr" hreflang = "fr-fr"/>

এখানে hreflang শব্দের সামনে যেই ভাষা এবং দেশের জোড়া ব্যাবহার করা হয়েছে (en-us) সেটির লিংকের সাথে মিল হওয়া জরুরি।

যদি পেজটি ইংলিশে হয় এবং আপনি চাইছেন যে এটি ইউনাইটেড স্টেটস এ রাংক করুক তাহলে hreflang ট্যাগ এ en-us ব্যাবহার করতে হবে।

যদি পেইজটি ফ্রেঞ্চ ভাষায় হয় এবং আপনি চাইছেন এটি ফ্রান্সে রাংক করুক তাহলে hreflang ট্যাগ এ fr-fr ব্যাবহার করতে হবে।

যদি পেইজটি ফ্রেঞ্চ ভাষায় হয় এবং আপনি চাইছেন এটি ইউনাইটেড স্টেটস এ রাংক করুক তাহলে hreflang ট্যাগ এ fr-us ব্যাবহার করতে হবে।

প্রথম অংশটি ভাষার জন্য। দ্বিতীয় অংশটি কান্ট্রি এর জন্য।

এই ভাষা এবং কান্ট্রি স্পেসিফিক ট্যাগের সাথে একটি ডিফল্ট ট্যাগ যুক্ত করা অত্যন্ত জরুরি। এটি বাকি ব্যবহারকারীদের জন্য যারা এই স্পেসিফিক ভাষা এবং দেশের বাইরে।

এর গঠন অনেকটা নিচের কোডের মতো। এখানে x-default ডিফল্ট এর মত কাজ করে।

<link rel = "alternate" href = "http://abcd.com/" hreflang = "x-default"/>

চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন

এখন আমরা আলোচনা করবো ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর তৃতীয় অংশ অর্থাৎ চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া নিয়ে। চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন অত্যন্ত জরুরি। কারণ আপনি আপনার ওয়েবসাইটে যে যে পরিবর্তন আনছেন সেটি সার্চ ইঞ্জিন বুঝতে পারছে কিনা সেটা দেখা উচিত।

ওয়েবসাইটটি সঠিক ভাষা এবং দেশ এর ভিজিটরদের টার্গেট করছে কিনা এটি জানা জরুরি। এজন্য গুগল আপনাকে একটি টুল দিচ্ছে। সেটি হলো ইন্টারন্যাশনাল টার্গেটিং। ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও টার্গেটিং টুলটি দেখে নিন এই লিংক থেকে

ইন্টারন্যাশনাল টার্গেটিং টুলটি বা ব্যবহার করে আপনি টার্গেটিং কান্ট্রি এবং ল্যাংগুয়েজ জানতে পারবেন।

ইন্টারন্যাশনাল টার্গেটিং টুল

প্রথমে দেখে নিবেন আপনি সঠিক গুগল একাউন্ট থেকে লগ ইন করেছেন কিনা। আপনি গুগল সার্চ কনসোল এর ভেরিফাইড প্রোপার্টি গুলোর মধ্যে যেই সাইটটির টার্গেটেড কান্ট্রি বা ল্যাংগুয়েজ চেক করতে চান সেটি সিলেক্ট করবেন। প্রপার্টি সিলেক্ট করার পরে টুলটি আপনাকে দুটি ট্যাব দেখাবে। একটি হলো ল্যাংগুয়েজ, অপরটি হলো কান্ট্রি।

ওয়েবসাইটে কোনো ল্যাংগুয়েজ ট্যাগ থাকলে রেজাল্টে সেটির লিস্ট আপনি দেখতে পাবেন। না থাকলে আপনি একটি নোটিশ দেখতে পাবেন।

ইন্টারন্যাশনাল টার্গেটিং টুল প্রপার্টি সিলেক্ট

একইরকমভাবে যখন আপনি কান্ট্রি ট্যাবে ক্লিক করবেন তখন দেখতে পারবে একটি চেকবক্সের পাশে লিখা আছে Target users in:।

ইন্টারন্যাশনাল কান্ট্রি টার্গেটিং

সেখানে ড্রপডাউন থেকে সিলেক্ট করবেন আপনি কোন কান্ট্রির ওয়েবসাইট ব্যাবহারকারীদের টার্গেট করতে চান। কান্ট্রি সিলেকশন এর জন্য টার্গেট ইউজার্স ইন থেকে কান্ট্রি সিলেক্ট করবেন। তারপর সেইভ এর ক্লিক করবেন।

ইন্টারন্যাশনাল কান্ট্রি টার্গেটিং ইউজার সিলেকশন

এভাবে গুগল বুঝতে পারবে আপনি কোন কান্ট্রির ভিজিটরদের টার্গেট করছেন।

এই তিনটি পয়েন্ট ছিল ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর মৌলিক বিষয়। এরপর এর সাথে আরো ছোটখাটো কিছু বিষয় খেয়াল রাখা জরুরী।

  1. দেশ এবং ভাষার উপর ভিত্তি করে কন্টেন্টকে মোডিফাই করুন। শুধুমাত্র প্রাইস নয়। পেজের কন্টেন্ট টার্গেট কান্ট্রি, ল্যাংগুয়েজ এবং কালচারের উপর ভিত্তি করে মোডিফাই করুন।
  2. গুগল ট্রান্সলেটর কিংবা অন্য কোনো ট্রান্সলেটর টুল ব্যাবহার করবেন না। এটি অনেকক্ষেত্রেই ভুল অর্থ দেয় কিংবা অর্থ পরিবর্তন করে দেয়।
  3. নিজে থেকে ব্যবহারকারীদের স্পেসিফিক ভাষার বা কান্ট্রির জন্য তৈরী করা পেইজে রিডাইরেক্ট করবেন না। গুগল আপনার পেইজ এর্বং পেইজের কন্টেন্টকে এজন্য বুঝতে চায় যাতে সে সঠিক ব্যবহারকারীকে দেখতে পারে। যখন আপনি নিজে এই কাজ তা করেন তখন এই প্রসেস এ সমস্যা হয়।
  4. লোকাল ডিরেক্টরি, লোকাল ওয়েবসাইট এবং লোকাল সরকারি ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক নেয়ার চেষ্টা করুন যাতে করে আপনার পেজ ওই স্পেসিফিক কান্ট্রি এবং ল্যাংগুয়েজ এর থেকে অথরিটি পায়।

উপসংহার

এই ছিল ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও এর গুরুত্তপুর্ন বিষয় যেমন কান্ট্রি টার্গেটিং এবং সেটাপ, ল্যাংগুয়েজ টার্গেটিং এবং সেটাপ,আর চেকআপ এবং ভেরিফিকেশন নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা। আমরা ইন্টারন্যাশনাল এস ই ও তে ব্যাবহৃত HREFLANG Tags নিয়ে কিছুটা আলোচনা করেছি। HREFLANG Tags নিয়ে আরো জানতে চাইলে আমাদের ক্যানোনিকাল ট্যাগ নিয়ে লিখা আর্টিকেলটি পড়তে পারেন। ক্যানোনিকাল ট্যাগও এর সাথেই সম্পর্কিত।

Monjirul

I am passionate about content publishing in Blogger and WordPress. I am working on many blogs. But Travel Nature Exhibition is my favorite one. The website address is travelnature.info

Leave a Reply